ডিভোর্স দিয়েও শরীরে বইতে হচ্ছে প্রাক্তন স্বামীর ট্যাটু, বিরক্ত সামান্থা

বিয়ের পরও বিড়ম্বনার শিকার দক্ষিণী অভিনেত্রী সামান্থা প্রভু। ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন আরেক অভিনেতা নাগা চৈতন্যকে। স্বামীর ভালোবাসায় ট্যাটু করিয়েছিলেন নিজ শরীরে। সেই ট্যাটুই যেনো এখন তার মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে।

নাগাকে ডিভোর্স দিয়েছেন সামান্থা প্রভু। কিন্তু শরীরে এখনো প্রাক্তনকে বয়ে বেড়াতে হচ্ছে নায়িকার। সামান্থার শরীরে অন্তত তিনটি ট্যাটু আছে যেগুলো একেবারেই তাঁর প্রাক্তন স্বামী নাগা চৈতন্যর স্মৃতি বিজড়িত। তার মধ্যে একটি ট্যাটু ঘাড়ের কাছেই, যাতে লেখা ‘ ইয়ে মায়া চেসভ’। দ্বিতীয় ট্যাটু অভিনেত্রীর পাঁজরের হারে। সেখানে খোদাই করা ‘চৈ’, যা তার প্রাক্তনের নামের প্রথম অক্ষর। আরেকটি ট্যাটু আরও গহীনে। সে বিষয়ে বেশি কিছু জানাননি সামান্থা।

ছবির সেটেই অভিনয় করতে গিয়ে প্রেম, তার পর বিয়ে। যদিও দক্ষিণী তারকা সামান্থা প্রভু এবং নাগা চৈতন্য বিয়ের পর মাত্র ৪ বছর একসঙ্গে ছিলেন। এর পর বিবাহবিচ্ছেদের পথে হাঁটেন। ২০২১ সাল থেকে দুই তারকাই ঝাড়া হাত পা, মুক্ত বিহঙ্গের মতো আবার যে যার জীবনে ফিরে গেছেন। কিন্তু ট্যাটু নিয়ে মুশকিলে পড়েছেন সামান্থা। প্রাক্তনকে নিয়ে সারা গায়ে যে ট্যাটু করিয়েছিলেন সেগুলো এখন মুছে ফেলার ঝক্কি পোহাবেন কিনা বুঝতে পারছেন না। তবে হারে হারে বুঝছেন, যে ভালোবাসার স্রোতকে ট্যাটুর মতো চিরখোদাই না করলেও পারতেন।

ইনস্টাগ্রামে ‘আস্ক মি এনিথিং’ পর্বে জনৈক ভক্ত নাকি সামান্থা রুথকে জিজ্ঞেস করেন, ‘এর পর কী ধরনের ট্যাটু করানোর কথা ভাবছেন?’ এতেই প্রায় চমকে ওঠেন ‘দ্য ফ্যামিলি ম্যান’ -এর অভিনেত্রী। জবাব দেন, ‘জীবনে এই ভুল আর নয়। যদি ছোট থাকতাম নিজেকে আটকাতাম।’ এই উত্তরের প্রতিক্রিয়ায় দুঃখ বোধ করেন অনেকেই, বুঝতে পারেন অভিনেত্রীর মানসিক যন্ত্রণার কথা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*